realme C21 বাংলাদেশে নিয়ে এলো রিয়েলমি, কিন্তু…

রিয়েলমি আজ বাংলাদেশে রিলিজ করলো C সিরিজের নতুন একটি স্মার্টফোন C21, যেটি মোটামুটি এন্ট্রি লেভেল একটি স্মার্টফোন। এর সাথে একটি মিডরেঞ্জ স্মার্টফোনও লঞ্চ করেছে তারা, অর্থাৎ, realme 8 Pro। যাইহোক, C21-এর ৪/৬৪ এডিশন বাংলাদেশে আনা হয়েছে ১২ হাজার টাকায়।

C সিরিজ ও নারজো সিরিজের বেশকিছু ফোনে স্কয়ার ক্যামেরা মডিউল ব্যবহার করেছে রিয়েলমি, এবারও স্কয়ার সাইজ ধরে রাখা হয়েছে, তবে এবারেরটা আগেরগুলো থেকে সুন্দর লাগছে। ব্যাকপার্টের প্যাটার্ন ও কালারও সুন্দর লেগেছে। দুটো কালারে ফোনটি এসেছে, Cross Blue ও Cross Black। তবে সবচেয়ে আশ্চর্যজনক হলো এরকম বাজেটের একটি স্মার্টফোনে স্পিকার ব্যাকসাইডে থাকছে, যেটা সচারচর শুধু একদম লো বাজেট ডিভাইসগুলোতেই থাকে।

6.5″ ডিসপ্লে এখন খুবই সাধারণ, যেটা C21-এও থাকছে। এটি IPS প্যানেল এবং রেজ্যুলেশন HD+ (1600*720)। ব্রাইটনেস 400nits (typ), তাই আউটডোর সিচুয়েশনে ব্রাইটনেস কম মনে হতে পারে। সবমিলিয়ে ডিসপ্লেতে একদমই সাদামাটা একটি ডিভাইস realme C21।

চিপসেট সেকশনে C11 ও C12-এর মত এবারও Helio G35 দেয়া হয়েছে। এতে আছে 2.3GHz সর্বোচ্চ ক্লকস্পিডের অক্টাকোর চিপসেট, যার সবগুলো কোর ARM Cortex A53 এবং GPU IMG8320@680MHz। এটি এই দামে রিয়েলমি থেকে একটু হতাশাজনক-ই, যেহেতু তারা পারফর্মেন্স সেন্ট্রিক ফোন এনে থাকে। চিপসেট নিয়ে আরো জানতে নিয়নবাতি ব্লগে প্রকাশিত আমাদের এই লেখাটি দেখে নিতে পারেন।

ক্যামেরা সেকশনেও C21 কোন বিশেষত্ব নিয়ে আসেনি, 13MP প্রাইমারি শুটারটি f/2.2 অ্যাপার্চারের এবং সাথে 2MP করে f/2.4 B&W পোট্রেট ও ম্যাক্রো লেন্স যুক্ত করে ত্রিপল ক্যামেরা বানানো হয়েছে। এর সাথে সেলফি ক্যামেরাতে f/2.2 5MP এই দামে বেশ হতাশাজনক।

রিয়েলমির সাম্প্রতিক এন্ট্রি লেভেল ফোনগুলোতে 6000mAh ব্যাটারী দেয়ার প্রবণতা থাকলেও এবার অবশ্য তারা 5000mAh যুক্ত করেছে, যেটা আমার মতে যথেষ্ট। বিশেষ করে C12 ও Narzo 30A-এ 9.8mm থিকনেস ছিলো, ব্যাটারী কম হওয়ায় C21-র থিকনেস 8.9mm, ওজন 190g, অর্থাৎ, এটা কিছুটা বেশি কমফোর্টেবল। তবে চার্জিংয়ের জন্য আবারো হতাশ করে তারা MicroUSB Type B দিয়েছে, নেই কোন ফাস্ট চার্জিং সমর্থন।

সফটওয়্যার হিসেবে থাকছে realme UI বেজড অন Android 10। সেন্সর সেকশনে লাইট, প্রক্সিমিটি, একসেলারেশন ও ম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন সেন্সর থাকছে, আর সম্ভবত ভার্চুয়াল জাইরোস্কোপ ব্যবহারের সুবিধাও থাকবে।

সব মিলিয়ে C21 নিয়ে একটা কিন্তু থেকে যায় যে, মাত্র ১০০০ টাকা বেশি দামে যখন Narzo 30A আছে, তখন কে এটা কিনবে? আমার মনে হয়েছে এটা রিয়েলমির পুরনো বিজনেস স্ট্র্যাটেজি। তাদের যে ফোনগুলো গ্রেট ভ্যালু ফর মানি হয়, সেগুলো সচারচর দেখা যায় বাজারে দুর্লভ হয়ে যায়। অর্থাৎ, আপনি হয়ত Narzo 30A কিনতে যাবেন, না পেয়ে C21 কিনে আনবেন এরকম একটা স্ট্র্যাটেজি হয়ত এখানে আছে, এটা আমার অনুমান।

যাইহোক, ১২ হাজার টাকার একটি স্মার্টফোন হিসেবে C21 আমার ভালো লাগেনি। আপনার কাছে কেমন লেগেছে, আমরা জানতে চাই, কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেন না!

আরো জানুন: অফিসিয়াল ওয়েবপেজ

Leave a Reply